Borhan IT https://www.borhanit.com/2020/12/blog-post_14.html

সফটওয়্যার আপডেট করতে পারবেন একদম সহজেই!

 কম্পিউটার যারা ব্যবহার করেন সবাই এর মধ্যকার বিভিন্ন সফটওয়্যারের সাথে পরিচিত। এসব সফটওয়্যার ব্যবহার করার মাধ্যমে আমরা নানান রকম কাজ করে থাকি। তবে প্রায়ই দেখা যায় বিভিন্ন সফটওয়্যারে ত্রুটি দেখা যায়, সিকিউরিটি সমস্যা হয়। ডেভেলপাররা সাধারণত এসব সমস্যা বা বাগ সমাধান করে পরবর্তীতে সফটওয়্যারটির নতুন সংস্করণ বা আপডেট এনে থাকেন। সব সফটওয়্যারের আপডেট কখন কোনটা আসছে খোঁজ রাখা আবার সেগুলো একটা একটা করে আপডেট দেয়া প্রায়ই একটা জটিলতার কাজ হয়ে দাঁড়ায়। তাই আজকে আমি দেখাতে চলেছি কিভাবে আমরা আমাদের উইন্ডোজের সকল সফটওয়্যার আপডেট করতে পারি একদম বিনা ঝামেলায়!




ডেভেলপার্স ব্লগে সাবস্ক্রাইব করুন

অনেক সফটওয়্যার ডেভেলপাররা তাদের তৈরিকৃত প্রোডাক্ট সম্বন্ধে নতুন তথ্য, ছোট বড় আপডেট সবকিছু সম্বন্ধেই তাদের ব্লগে জানিয়ে থাকে। ফলে সেখান থেকে নতুন সব আপডেট বা ফিচার সম্বন্ধে জানাটা সহজ হয়ে যায়। তবে সব ডেভেলপাররা অবশ্য ব্লগ মেইনটেইন করেন না। সেক্ষেত্রে আপনি কিছু সাইটের মাধ্যমে এই বিষয়গুলো সম্বন্ধে অবগত হতে পারেন এবং নিত্যনতুন চমৎকার সব এপের লিস্ট পাবেন যারা প্রায় নিয়মিতই আপডেটেড থাকে। সেরকমই কয়েকটি সাইট দেখে নেয়া যাক:

Filehippo website: উইন্ডোজ, ম্যাক এবং ওয়েবের জন্য সেরা সব এপের সন্ধান পাবেন এই সাইটে। এখানে পপুলার এপ্স এবং বিভিন্ন ক্যাটাগরি যেমন: ফাইল শেয়ারিং, কমপ্রেসিং, মেসেজিং ইত্যাদির জন্য লিস্ট আলাদাভাবে সজ্জিত পাবেন।

MajorGeeks: এটা অনেক টেক এনথুজিয়াস্টদের পছন্দের সাইট কেননা এরা সেই ১% এপ তাদের সাইটে রাখে যেগুলো একদম সেইফ আর সেরা সার্ভিস দেয়। এখানেও পপুলার এপ্স এবং অন্যান্য বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে সফটওয়্যার সজ্জিত থাকে। এদের আরেকটি সেকশন রয়েছে যেখানে ডেটাবেইজে দেখা যায়, বিভিন্ন সফটওয়্যার বিভিন্ন ভার্সনের কম্পিউটারে কতটা ভালোভাবে কাজ করছে। যদিও ডেটাবেইজটি বড় নয় তবে এর এটি ২০০১ থেকে চালিয়ে আসছে।

Gizmo’s Freeware: এটা একধরনের টেক সাপোর্ট এলার্ট বলা যায় যা বিভিন্ন রকম ফ্রিওয়্যার রিভিউ করে ও সূক্ষ বিশ্লেষণ করে ইউজারদের সাজেস্ট করে থাকে। ভলান্টিয়ারদের দ্বারা চলমান এই সাইটটি ডজন ডজন ফ্রিওয়্যার থেকে সেরাগুলো তুলে ধরতে কাজ করে।

এপগুলোর টুইটারলিস্ট বানিয়ে রাখুন

বর্তমানে প্রায় সব ডেভেলপার বা সফটওয়্যার ক্রিয়েটর বা কোম্পানিই তাদের প্রোডাক্টের সর্বোচ্চ মার্কেটিং নিশ্চিত করতে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করছে। বিশেষ করে টুইটারে তাদের প্রতিনিয়ত সকল কাজ থেকে শুরু করে বাগ ফিক্সিং; সকল আপডেটের খবর পাবলিশ হচ্ছে। সুতরাং টুইটার একাউন্টে তাদেরকে ফলো করুন, তাদের এক্টিভিটিস দেখুন, সেগুলোতে মানুষের ফিডব্যাক দেখুন। আপনার সফটওয়্যার বিষয়ক নলেজ নিয়মিত আপডেটেড থাকবে।
সকল এপকে টুইটারে এড করা হয়ে গেলে আপনি এরপর টুইটডেক থেকে সরাসরি সেগুলোর আপডেট পেতে পারেন।



Software Update Tools ব্যবহার 

এ ধরনের টুলসগুলো আপনার কম্পিউটারের পুরোনো ও এক্সপায়ার্ড সফটওয়্যার প্যাকেজগুলো মনিটর করবে, আপডেটস প্রয়োজন কিনা চেক করবে। কিছু টুলস আবার এর পাশাপাশি এদের মাধ্যমে আপডেট দিয়ে নেয়ার ব্যাপারটিও সহজ করে তুলেছে। তবে যেকোনো সফটওয়্যার আপডেট টুলস ব্যবহারের আগে যে বিষয়গুলো খেয়াল করবেন:

১. এটি কতগুলো সফটওয়্যার আপডেট ডিটেক্ট করতে পারবে।
২. এটি কি স্টার্টআপেই রান করবে এবং অটোমেটিক আপডেট স্ক্যান করবে?
৩. এটি কি অটোমেটিক আপডেট ডাউনলোড করে নিবে নাকি আপনাকে আপডেটের একটা লিংক সরবরাহ করবে?
৪. ইন্সটলারটি টুলবারের মতো অতিরিক্ত অপ্রয়োজনীয় কোনো সফটওয়্যার সাথে নিয়ে আসছে না তো?
এবার তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক কয়েকটি ভালো সফটওয়্যার আপডেট টুলস সম্বন্ধে।

১. SuMo

এই SuMo বা সফটওয়্যার আপডেট মনিটরটি মূলত আপনার কম্পিউটারে ব্যবহৃত হবে লেটেস্ট ভার্সনের সফটওয়্যার ইনস্টল নিশ্চিতকরণের কাজে।

নোট: এর রেগুলার ভার্সনের সাথে একটা এডওয়্যার আসে যেটাকে বেশিরভাগ সিকিউরিটি টুলসই স্পাইওয়্যার ভেবে বসতে পারে। সুতরাং, এর লাইট ভার্সনটি ডাউনলোড করা ভালো কেননা, এর সাথে কোনো এডওয়্যার আসে না।



ইনস্টল করার পর একে আপনার পুরো কম্পিউটার স্ক্যান করে পুরোনো বা এক্সপায়ার্ড সফটওয়্যার বের করতে এলাউ করে দিন। এটি যেসব ফাইল চেক করে: “Program Files,” “Program Files (x86),” “Users,” “Registry" এবং যেকোনো কাস্টম ফোল্ডার যেমন পোর্টেবল সফটওয়্যার ফোল্ডার।

অপশন্সে ক্লিক করে সেটিংসে যান এবং স্ক্যান সেকশনের নীচে এডিশনাল ফোল্ডারে ক্লিক করুন। নতুন একটি উইন্ডো ওপেন হবে এবং সেখানে Add চাপুন আপনার নির্দিষ্ট ফোল্ডারটি এড করার জন্য।




আপনার পিসিতে আপডেটেড এপ্সের এভেইলেবিলিটি চেক করতে  “Check”  বাটনে ক্লিক করুন। আপনার কাছে কোনো এমডেট প্রয়োজনীয় মনে না হলে “Skip this update” এ ক্লিক করুন।



যখন আপনি “Get Update” এ ক্লিক করেন তখন সুমো এজপায়ার্ড প্যাকেজগুলোকে লিস্ট বহির্ভুত করে দেয়, তবে সরাসরি কোনো ডাউনলোড পেইজে নিয়ে যায় না বরং এপগুলোর ব্যবহারকালীন তথ্যাবলী সম্বন্ধিত ওয়েবপেইজে আনে। এ ধরনের সফটওয়্যার আপডেট টুল ব্যবহার করার সুবিধা নিশ্চয়ই রয়েছে, যেহেতু এরা আপডেটের প্রসেসটি অনেকটা সহজ করে তোলে।

২. Ninite

এটি এমন একটি টুল যা আলনাকে খুব সহজেই ডেস্কটপের জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন এপ ডাউনলোড, ইনস্টল ও আপডেট করতে দেয়। এর মাধ্যকমে আজেবাজে আর বিরক্তিকর সব এড দিয়ে ভর্তি সাইটের বদলে সহজ, ইফেক্টিভভাবে এপ ডাউনলোড করা যাবে।

ওয়েবসাইটটি ভিজিট করুন, সেখানে দেখতে পাবেন লিস্ট রয়েছে বিভিন্নরকম এপের। যেটি ডাউনলোড করতে চাচ্ছেন সেটি সিলেক্ট করে “Get Your Ninite” ইনস্টলারে ক্লিক করুন। প্রোগ্রামগুলো অটোমেটিক নিজস্ব ফোল্ডারে ইনস্টল হয়। আপনার কম্পিউটার সিস্টেম ৬৪ বিটের হলে সেটা অটোমেটিক এই ভার্সনেই ডাউনলোড হবে। এক্সপায়ার্ড কোনো এপ আপডেট করতে হলে টুলটি পুনরায় রান করান, এটি ব্যাকগ্রাউন্ডে আপডেট হবে।

৩. Chocolatey 

এটি একটু কমান্ড লাইন এপ্লিকেশন সফটওয়্যার। এটিও আগেরটার মতোই প্রোগ্রাম ইনস্টল,আপডেট ইত্যাদি কাজ ব্যাকগ্রাউন্ডে করতে সক্ষম। ওদের ডেটাবেইজ বেশ সমৃদ্ধ। এটি রান করতে যেসব শর্ত দেয়া থাকে:
১. উইন্ডোজ ৭ বা তারচেয়ে বেশি
২. উইন্ডোজ সার্ভার ২০০৩ বা তার পরের
৩. পাওয়ার শেল ভার্সন দুই বা তার বেশি
৪. আপনার .NET framework 4+ থাকতে হবে। ( যদি আপনার ডট নেট না থাকে, তবে এটি অটোমেটিক তা ডাউনলোডের দিকে যাবে।)

Chocolatey Install এ যান এবং “Installing Chocolatey” সেকশনের নীচে কমান্ডটি কপি করে নিন যা “Cmd.exe” তে লিস্টেড:

@powershell -NoProfile -ExecutionPolicy Bypass -Command "iex ((New-Object System.Net.WebClient).DownloadString('https://chocolatey.org/install.ps1'))" && SET "PATH=%PATH%;%ALLUSERSPROFILE%\chocolatey\bin"

Win + X” চাপুন এবং “Command Prompt (Admin)” চুজ করুন। এখন, কপি করা কমান্ডটি পেস্ট করে দিন এবং এন্টার চাপুন। যেহেতু চালু হয়ে গেছে, এবার সফটওয়্যার ইনস্টলের পালা। 
Chocolatey Package ওয়েবসাইটে যান, সেখানকার ডেটাবেইজে প্রায় ৪০০০+ প্যাকেজ পাবেন। ধরে নিই আপনি গুগল ক্রোম ইনস্টল করবেন।
তাহলে কমান্ড প্রম্পট উইন্ডোতে টাইপ করুন:
choco install googlechrome

যদি ফায়ারফক্স ইনস্টল করতে চান, টাইপ করুন:

choco install firefox




ছবি সংগৃহীত: Beebom.com

কোনো সফটওয়্যার প্যাকেজ আপডেট করতে চাইলে সিম্পলি টাইপ করুন: choco upgrade

সুতরাং গুগল ক্রোমের ক্ষেত্রে এটি: choco upgrade googlechrome

ফায়ারফক্সের ক্ষেত্রে এটি: choco upgrade firefox

কোনো প্যাকেজ আনইনস্টল করতে চাইলে: choco uninstall

এই Chocolatey আসলে একটা একের ভিতর সব ধরনের প্রোগ্রাম। অসাধারন ইউজার ফ্রেন্ডলি হওয়ায় একবার এটায় অভ্যস্ত হয়ে গেলে আপনি আর ম্যানুয়ালি আপডেট করতে যেতে চাইবেন না।

আপনার সকল সফটওয়্যার আপডেট হোক এখন আরো সহজ

উপরোক্ত প্রোগ্রামগুলোর মাধ্যমে অত্যন্ত সহজে আপনি আপনার ডেস্কটপের সকল সফটওয়্যার আপডেটের কাজ সেরে নিতে পারবেন অত্যন্ত সহজে। আশা করছি সকলেরই তথ্যগুলো কাজে লাগবে।

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন ও আপনার মতামত জানান। সকলের সর্বাঙ্গীন সুস্থতা কামনা করে এখানেই শেষ করছি। ধন্যবাদ।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া